পশ্চিমবঙ্গ

গলসিতে মাথায় কুড়ুল বিদ্ধ অবস্থায় যুবকের দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য, গ্রেপ্তার এক

FOCUS BENGAL

FOCUS BENGAL

ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,গলসি: রাতে বাড়ি থেকে বেরোনোর কিছুক্ষণের মধ্যেই বাড়ির অদূরেই উদ্ধার হল মাথায় কুড়ুল বিদ্ধ যুবকের দেহ। পরিবারের লোক ও গ্রামবাসীরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে গলসির পুরষা হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন যুবককে। মৃত যুবকের নাম উৎপল ঘোষ(২৮)। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ গলসী থানার সন্তোষপুর ঘোষপাড়া এলাকায়। ঘটনার খবর পেয়েই দ্রুত গলসী থানার পুলিশ পৌঁছায় ঘটনাস্থলে। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকাজুড়ে।

বিজ্ঞাপন

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উৎপল পুকুর লিজ নিয়ে এলাকায় মাছ চাষ করতো। রবিবার রাতে গ্রামেরই দুজন টুলু পাম্প ভাড়ায় নেবে বলে উৎপল কে ডাকে। এরপর উৎপল বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। এর কিছুক্ষণ পরই মাথায় কুড়ুল বিদ্ধ অবস্থায় রাস্তার ধারে পরে থাকতে দেখা যায় উৎপল কে। পরিবারের লোকেরা ও গ্রামবাসীরা তাকে উদ্ধার করে গলসীর পুরষা ব্লক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষনা করেন। এই ঘটনায় পুলিশ মনোজ ঘোষ নামে এক ব্যক্তিকে রাতেই গ্রেপ্তার করে। সোমবার বর্ধমান জেলা আদালতে পেশ করে ধৃতের পুলিশি হেফাজতের আবেদন জানিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উৎপল ঘোষের সঙ্গে মনোজ ঘোষের পূর্ব পরিচয় ছিলই। দুজনেই প্রতিবেশী। মনোজ চাষের কাজ করে। অন্যদিকে উৎপল মাছ চাষের ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত। জানা গেছে, কিছুদিন আগে উৎপলের স্ত্রীকে মনোজ কটূক্তি করায় মনোজের সঙ্গে উৎপলের বচসা হয়। তারপর থেকেই দুজনের মধ্যে মনোমালিন্যের সূত্রপাত। স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশের প্রাথমিক অনুমান সেই রাগ থেকেই উৎপলের উপর আক্রমণ চালিয়েছে মনোজ ঘোষ। 

যদিও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রবিবার রাতে যে দুজন ব্যক্তি উৎপল ঘোষের বাড়িতে গিয়েছিল তারা এই খুনের ঘটনায় যুক্ত নয়। তবে অভিযুক্ত মনোজ ঘোষ রাতের অন্ধকারে উৎপলের বাড়ি থেকে বেরোনোর সুযোগ কে কাজে লাগিয়েই কুড়ুল নিয়ে উৎপলের উপর আক্রমণ করে। একবার নয়, দুবার কুড়ুল দিয়ে উৎপল ঘোষের মাথায় আঘাত করা হয়েছে বলেই পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। খুনের সাথে ব্যবসায়িক শত্রুতা না এর পিছনে অন্য কোনো কারন আছে তা তদন্ত করে দেখছে গলসী থানার পুলিশ।
Advertisement