পশ্চিমবঙ্গ

বর্ধমান শহরের মধ্যেই উদ্ধার ১১৬কেজি নিষিদ্ধ গাঁজা, গ্রেপ্তার দুই পাচারকারী

FOCUS BENGAL

FOCUS BENGAL

ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: বিশেষ সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে বর্ধমান জেলা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ ও বর্ধমান থানার পুলিশ শুক্রবার রাতে বাজেপ্রতাপপুরের দিকে রেলওয়ে ওভারব্রিজের নিচে একটি অ্যাম্বাসেডর গাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ গাঁজা উদ্ধার করল। গ্রেপ্তার করা হয়েছে দুই ব্যক্তিকে। পুলিশ জানিয়েছে, উদ্ধার হওয়া গাঁজার পরিমাণ প্রায় ১১৬ কেজি। ধৃত ব্যক্তিরা হল বর্ধমান শহরের নারায়ণদীঘি, ক্যানেলপাড় এলাকার বাসিন্দা শেখ ফিরণ ওরফে শেখ ফিরোজ(৩০) এবং বাজেপ্রতাপুর, সুভাষ পল্লী এলাকার বাসিন্দা বিজয় রায়(৩২)। স্বাভাবিকভাবেই খোদ বর্ধমান শহরের মধ্যেই বসবাসকারী এই দুষ্কৃতীরা এই বিপুল পরিমাণ গাঁজার মজুদ করছে ও অন্যান্য জায়গায় সরবরাহ করছে এই তথ্য সামনে আসার পরই ফের শহর জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

বিজ্ঞাপন

শনিবার বর্ধমান থানায় একজিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট অভিরুপ ভট্টাচার্য্যের উপস্থিতিতে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কল্যাণ সিনহা রায় একটি সাংবাদিক সম্মেলনে জানান, গতকাল রাতে কালনা রোডের উপর বর্ধমান ভবনের সামনে রেল ফ্লাই ওভারের নিচে একটি অ্যাম্বাসেডর গাড়িকে আটকিয়ে তল্লাশি চালানোর সময় ৮টি নাইলনের বস্তা উদ্ধার হয়। জিজ্ঞাসাবাদের পর দেখা যায় বস্তা গুলিতে গাঁজা জাতীয় বস্তু রয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে এই বস্তুটি গাঁজা। সঙ্গে সঙ্গে গ্রেপ্তার করা হয় চারচাকা গাড়িতে থাকা দুই ব্যক্তিকে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, অ্যাম্বাসেডর গাড়িটি সাতগাছিয়া অভিমুখে যাচ্ছিল। ইতিমধ্যেই গাঁজা উদ্ধার কান্ডের তদন্ত শুরু করা হয়েছে। ধৃতদের শনিবার বর্ধমান আদালতে পেশ করেছে পুলিশ।

 পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতদের হেফাজতে নিয়ে আরো জিজ্ঞাসাবাদ চালানো হবে। তদন্ত করে দেখা হবে এই গ্যাংয়ের সঙ্গে আরও কারা যুক্ত রয়েছে। এই বিপুল পরিমাণ গাঁজা কোথা থেকে নিয়ে আসা হয়েছিল, কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। কতদিন ধরে ধৃতরা এই কারবার চালিয়ে আসছে ইত্যাদি সমস্ত দিক খতিয়ে দেখা হবে। এদিকে খোদ জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারের বাংলোর খুব কাছেই এই লক্ষাধিক টাকার নিষিদ্ধ গাঁজা উদ্ধারের ঘটনায় আলোড়ন পড়েছে। 

Advertisement